শিরোনাম:
ঢাকা, মঙ্গলবার, ২১ মে ২০২৪, ৭ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১

Shikkha Bichitra
রবিবার, ১৭ সেপ্টেম্বর ২০২৩
প্রথম পাতা » দেশজুড়ে » তরুণরাই আগামীর স্মার্ট বিদ্যুৎ ও জ্বালানি খাত গড়বে: বিদ্যুৎ প্রতিমন্ত্রী
প্রথম পাতা » দেশজুড়ে » তরুণরাই আগামীর স্মার্ট বিদ্যুৎ ও জ্বালানি খাত গড়বে: বিদ্যুৎ প্রতিমন্ত্রী
৫৯১ বার পঠিত
রবিবার, ১৭ সেপ্টেম্বর ২০২৩
Decrease Font Size Increase Font Size Email this Article Print Friendly Version

তরুণরাই আগামীর স্মার্ট বিদ্যুৎ ও জ্বালানি খাত গড়বে: বিদ্যুৎ প্রতিমন্ত্রী

---

তরুণদের হাতেই আগামীর স্মার্ট বিদ্যুৎ ও জ্বালানি খাত গড়ে উঠবে বলে মন্তব্য করেছেন বিদ্যুৎ, জ্বালানি ও খনিজ সম্পদ প্রতিমন্ত্রী নসরুল হামিদ।

বৃহস্পতিবার (১৪ সেপ্টেম্বর) সিআরআই-এর তারুণ্যের প্লাটফর্ম ইয়াং বাংলাআয়োজিত এনার্জি অ্যান্ড ফাইনান্সশীর্ষক লেটস টকএর প্যানেলিস্ট হিসেবে বক্তব্য এ কথা বলেন তিনি। এ সময় তিনি আরও বলেন, ‘তরুণরাই দেশের ভবিষ্যৎ। মাননীয় প্রধানমন্ত্রী আগামীর তরুণদের জন্য সমান সুযোগ ও সম্ভাবনা তৈরিতে নিরলসভাবে কাজ করে যাচ্ছেন। ২০৪১ সালের মধ্যে বাংলাদেশ একটি উন্নত, আধুনিক ও স্মার্ট বাংলাদেশ হবে। সেই বাংলাদেশের নেতৃত্বে থাকবে আজকের তরুণরাই।

তরুণদের সঙ্গে নীতি নির্ধারকদের আলোচনার প্লাটফর্ম হিসেবে ইয়াং বাংলার নিয়মিত আয়োজন লেটস টক। এবারের আয়োজনে প্যানেলিস্ট হিসেবে উপস্থিত হয়ে অংশগ্রহণকারী তরুণদের বিভিন্ন প্রশ্নের উত্তর দেন প্রতিমন্ত্রী। এ সময় দেশের ভবিষ্যতের বিদ্যুৎ ও জ্বালানি খাত নিয়ে নিজেদের মতামত তুলে ধরেন তরুণরা। প্রতিমন্ত্রী তাদের মতামত গুরুত্ব সহকারে বিবেচনা করার আশ্বাস দেন।

নসরুল হামিদ আলোচনায় আরও বলেন, গ্যাস ও বিদ্যুৎ সঞ্চালন, স্মার্ট গ্রিড নির্মাণ, বিদ্যুৎ ও জ্বালানি খাতে আধুনিক প্রযুক্তি স্থাপন, নবায়নযোগ্য জ্বালানি, অফশোর ও অনশোর বায়ুবিদ্যুৎ, লিথিয়াম ব্যাটারি কারখানা স্থাপন, সাইবার সিকিউরিটি, তেল ও গ্যাস অনুসন্ধান প্রভৃতি খাতে প্রচুর বিনিয়োগ হবে সামনের দিনগুলোতে। চার্জিং স্টেশন বা চার্জিং নীতিমালা করা হয়েছে। ইলেকট্রিক ভেহিক্যাল খাতেও বিনিয়োগ ও উদ্ভাবনী চিন্তা তরুণদের অংশগ্রহণ বাড়বে আগামীতে। নিরবচ্ছিন্ন ও সাশ্রয়ী মূল্যে বিদ্যুৎ সরবরাহের চ্যালেঞ্জ নিয়ে সরকার কাজ করছে। আগামী ১৫ বৎসরে বিদ্যুৎ খাতে প্রায় ৭৫ বিলিয়ন ডলার প্রয়োজন।

জ্বালানি সাশ্রয়ে তরুণদের সচেতনতা বাড়াতে ভূমিকা রাখার আহবান জানিয়ে প্রতিমন্ত্রী আরও বলেন, শুধু সচেতনতা দিয়েই হবে না, তরুণদেরকে এ কাজে উদ্ভাবনী চিন্তাভাবনা নিয়ে এগিয়ে আসতে হবে। নতুন উদ্ভাবন ও প্রযুক্তির আবিষ্কারকে বিদ্যুৎ ও জ্বালানি মন্ত্রণালয় সবসময় স্বাগত জানায়। কারো এমন কোন প্রকল্প থাকলে মন্ত্রণালয়ের বাংলাদেশ এনার্জি গবেষণা কাউন্সিলে জমা দেয়ার আহবান জানান তিনি। ইপিআরসি গবেষণা ও উদ্ভাবনী প্রকল্পে এককালীন অনুদান দিয়ে থাকে।

প্রতিমন্ত্রী বলেন, জ্বালানি খাতে উদ্ভাবনী প্রতিযোগিতা বিচ্ছুরণখুব শিগগিরই আবার চালু হচ্ছে।

সাহস মোস্তাফিজের সঞ্চালনায় লেটস টক-এর প্যানেলিস্ট হিসেবে আরও উপস্থিত ছিলেন বুয়েটের অধ্যাপক সেলিয়া শাহনাজ ও গ্রিন ভয়েজের ডিভিশনাল কো-অর্ডিনেটর ইশরাত জাহান।



আর্কাইভ