শিরোনাম:
ঢাকা, রবিবার, ২৬ সেপ্টেম্বর ২০২১, ১০ আশ্বিন ১৪২৮

Shikkha Bichitra
বুধবার, ২০ নভেম্বর ২০১৯
প্রথম পাতা » ব্যাবসা-বাণিজ্য » আয়কর অফিসে হয়রানি করলে ব্যবস্থা: এনবিআর চেয়ারম্যান
প্রথম পাতা » ব্যাবসা-বাণিজ্য » আয়কর অফিসে হয়রানি করলে ব্যবস্থা: এনবিআর চেয়ারম্যান
৯১৭৩৯ বার পঠিত
বুধবার, ২০ নভেম্বর ২০১৯
Decrease Font Size Increase Font Size Email this Article Print Friendly Version

আয়কর অফিসে হয়রানি করলে ব্যবস্থা: এনবিআর চেয়ারম্যান

আয়কর অফিসে হয়রানি করলে ব্যবস্থা: এনবিআর চেয়ারম্যানমেলার মতো হয়রানিমুক্ত কর সেবা আয়কর অফিসেও পাওয়া যাবে বলে জানিয়েছেন জাতীয় রাজস্ব বোর্ডের চেয়ারম্যান (এনবিআর) মোশাররফ হোসেন ভূঁইয়া। তিনি বলেছেন, ‘করদাতারা আয়কর মেলাকে নির্ভরযোগ্য মনে করেন। আমাদের কর অফিসেও এমন নির্ভরযোগ্যভাবে কর দিতে পারবেন। ট্যাক্স অফিসেও নির্ভরযোগ্য ও বিশ্বস্ততার সঙ্গে কর দিতে পারবেন। যারা হয়রানি করবে তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।’

বুধবার দুপুরে অফিসার্স ক্লাবে বৃহত্তর আয়কর ইউনিট (এলটিইউ)-আয়কর এর আওতাধীন ২১টি প্রতিষ্ঠান এনবিআর চেয়ারম্যানের হাতে আয়করের পে-অর্ডার হস্তান্তর করেন। এই উপলক্ষে আয়কর মেলা প্রাঙ্গণে আয়োজিত অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন এনবিআর চেয়ারম্যান।

অনুষ্ঠানে বিভিন্ন ব্যাংক-বিমার ২১টি প্রতিষ্ঠান ২৯৩ কোটি টাকার পে-অর্ডার এনবিআর চেয়ারম্যানের হাতে তুলে দেন।

অনুষ্ঠানে সাবেক যোগাযোগ মন্ত্রী সৈয়দ আবুল হোসেন উপস্থিত ছিলেন। তাকে পরিচয় করিয়ে দিয়ে এনবিআর চেয়্যারম্যান বলেন, ‘বৃহত্তর আয়কর ইউনিটের সর্বোচ্চ করদাতা তিনি। এবার আবুল হোসেন ৩০ কোটি টাকা আয়কর দিয়েছেন।’

এনবিআর চেয়্যারম্যান জানান, শেষ দিন মেলা চলবে রাত ৮টা পর্যন্ত। তবে যতক্ষণ করদাতারা থাকবেন ততক্ষণ তাদের সেবা দেয়া হবে। এনবিআর চেয়্যারম্যান বলেন, ‘আমরা করের আওতা বাড়ানোর জন্য বিভিন্ন ব্যবস্থা নিচ্ছি। করদাতাদের উদ্বুদ্ধ করছি। মেলাও এরই একটি অংশ।’

এনবিআর চেয়্যারম্যান কর ডিজিপি বাড়ানোর আশাবাদ ব্যক্ত করে বলেন, ‘এখন কর জিডিপি ১০ থেকে ১১ শতাংশ। ২০২৫ সালে কর জিডিপি ১৫ শতাংশ এবং ২০৩০ সালে ২০ শতাংশ নিয়ে যেতে চাই। এজন্য সবার সহযোগিতা প্রয়োজন।’

মোশাররফ হোসেন বলেন, ‘সামর্থ্যবানদের আয়কর দেয়া নৈতিক দায়িত্ব। দেশের উন্নয়নে বেশিরভাগই অভ্যন্তরীণ সম্পদ ব্যবহার করা হয়। আমাদের ডিজিপি গ্রোথ ৮ শতাংশের উপরে, এটা ধরে রাখতে হলে কর ডিজিপি বাড়াতে হবে।’ আয়কর মেলা বুধবার শেষ হলেও ৩০ নভেম্বর পর্যন্ত কর অঞ্চলে জরিমানা ছাড়া আয়কর রিটার্ন জমা দেয়া যাবে বলে জানান এনবিআর চেয়ারম্যান।